রবিবার, ১৬ই জুন ২০২৪, ২রা আষাঢ় ১৪৩১


৪ বছরের মেয়েকে হত্যা, খাওয়ানো হতো ‘মাউন্টেইন ডিউ’


প্রকাশিত:
২৭ মে ২০২৪ ১০:৩৯

আপডেট:
১৬ জুন ২০২৪ ০৬:২৪

ফাইল ছবি

কোমল পানীয়তে তৃষ্ণা মেটান অনেকেই। কিন্তু অধিক কোমল পানীয় পান করা প্রাপ্ত বয়স্কদের জন্যই স্বাস্থ্য হানিকর। আর শিশুদের জন্য তো মহা ভয়ের কারণ। আর এটিই হয়েছে চার বছরের এক মার্কিন শিশুর ক্ষেত্রে। মায়ের হাতেই নির্মম মৃত্যুর শিকার হয়েছে ছোট্ট কন্যা শিশু কার্মিটির। শিশুটিকে শুধুই মাউন্টেইন ডিউ খাওয়াতেন তার মা। বেবি ফুড পাউডারও মিশিয়ে দিতেন মাউন্টেইন ডিউর সঙ্গে।

দীর্ঘদিন এই খাদ্যাভ্যাসের কারণে ২০২২ সালের জানুয়ারিতে, ডায়াবেটিস ও দাঁতের গুরুতর ক্ষয়জনিত বাধিতে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছিল শিশুটির।

গত শুক্রবার শিশুটিকে হত্যার দায়ে তার মাকে নয় বছরের কারাদণ্ড দিয়েছে আদালত। এ ঘটনা, মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ওহায়ো প্রদেশের সিনসিনাটি শহরের।

নিউইয়র্ক পোস্ট জানিয়েছে, অভিযুক্ত নারীর নাম তামারা ব্যাঙ্কস। ৪ বছরের শিশু-কন্যা কার্মিটি হোয়েবকে তিনি প্রধাণত মাউন্টেইন ডিউ খাইয়ে রাখতেন বলে অভিযোগ। আদালতে সরকার পক্ষের আইনজীবী জানিয়েছেন, অনেক সময় মাউন্টেইন ডিউয়ের মধ্যে বেবি ফুড মিশিয়ে দিত তামারা। এভাবেই চলছিল। কিন্তু, ২০২২-এর জানুয়ারিতে গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়ে কার্মিটি। যত দিন যাচ্ছিল, ততই তার অবস্থা খারাপ হচ্ছিল। তবুও, তাকে কোনও চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যায়নি তামারা।

একদিন, কার্মিটির শ্বাস বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। গোটা শরীর নীল হয়ে গিয়েছিল। এরপর বাধ্য হয়ে জরুরি পরিষেবা বিভাগে ফোন করেছিল তামারা। জরুরি পরিষেবা বিভাগের কর্মীরা এসে দেখেছিলেন, শিশুটি প্রায় মৃত। তবুও প্রাথমিক চিকিৎসার মাধ্যমে তাকে কিছুক্ষণের বাঁচিয়ে তুলেছিলেন তারা। তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে ডাক্তাররা স্ক্যান করে দেখেছিলেন, সে ইতোমধ্যেই ব্রেন ডেড। অর্থাৎ, তার মস্তিষ্ক মৃত।

ময়নাতদন্তে দেখা যায়, ডায়াবেটিস থেকেই তার মস্তিষ্কের ক্ষতি হয়েছিল। যার জেরেই তার মৃত্যু হয়। শুধু তাই নয়, মৃত্যুর সময় মেয়েটির অনেক দাঁতও পুরো ক্ষয়ে গিয়েছিল।

নিয়মিত কার্মিটিকে, এই চিনিযুক্ত পানীয় খাওয়ানোর ফলেই তার দাঁত ক্ষয়ে গিয়েছিল বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। তার বাবা-মা তাকে কখনই ডেন্টিস্টের কাছেও নিয়ে যাননি। কার্মিটের বাবা, ক্রিস্টোফার হোয়েব-কেও ‘অনিচ্ছাকৃত হত্যা’র দায়ে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। তবে, তার সাজা এখনও ঘোষণা করা হয়নি।

ওহায়ো পুলিশ বিভাগ জানিয়েছে, ক্রিস্টোফার বোয়ব ও তামারা ব্যাঙ্কসের আরও সন্তান রয়েছে। তারা সবাই প্রাপ্ত বয়স্ক। তারাও এই বাবা-মায়ের অবহেলার শিকার হয়েছিলেন।

এদিকে শুনানির সময় মার্কিন বিচারক বলেন, ভালো বাবা-মা হওয়া কঠিন। কিন্তু বাবা-মা হিসেবে কী করতে হবে, তা জানা নেই, এটা কোনও অজুহাত হতে পারে না।



আপনার মূল্যবান মতামত দিন:




রিসোর্সফুল পল্টন সিটি (১১ তলা) ৫১-৫১/এ, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
মোবাইল: ০১৭১১-৯৫০৫৬২, ০১৯১২-১৬৩৮২২
ইমেইল : [email protected]; [email protected]
সম্পাদক : লিটন চৌধুরী

রংধনু মিডিয়া লিমিটেড এর একটি প্রতিষ্ঠান।

Developed with by
Top